এই ভয়টা জীবনে প্রথম পেলাম

আমি আমার শোবার ঘরে শুয়ে আছি, অসহ্য নেশার নিপীড়নে এক প্রকার নিথর অবস্থায়। আমার নিঃশ্বাস চলছে, হৃদপিণ্ডে স্পন্দন হচ্ছে, শরীরের রক্ত প্রবাহও বইছে, শুধু মাথার মধ্যে মগজটা একটু বেশি ছটফট করছে। ঘুম আসবে না জেনেও চোখ বন্ধ করে আছি। চোখ খুলে গেল, ভয়ে!

এই ভয়টা জীবনে প্রথম পেলাম। ঘুমিয়ে যাওয়ার ভয়। একদম ভরসা হচ্ছে না এই ঘুমের উপর। যদি এ ঘুম না ভাঙে! আমি এই ঘুমের রাজ্যের দখল দিতে চাই না।

একি! আমি ঘুমকে ভয় পাচ্ছি? ঘুম তাড়িয়ে বেড়াচ্ছি আমি? সত্যি কি মানুষের সাধ্য হয় ঘুমকে তাড়া করার? হয়তো। এই যে আমি ঘুমাইনি কাল সারারাত, আজ সারাদিন, আরও একটা/দুইটা রাত পারবো হয়তো। ততক্ষণে আমার ঘুম প্রচণ্ড রেগে যাবে আমার উপর। ঘুমের রাগ হয়, আর ও রাগলে খুব কালো দেখায় ওকে, ঘুটঘুটে কালো। হতে পারে এই কালোই মৃত্যু, মানব জনমের শেষ, জীবনের ইতি।

আমি ঘুম না, চিরনিদ্রাকে ভয় পাচ্ছি। কেননা, এ নিদ্রার আগে যে আমার বহু ঘুমের রাত পাওনা রয়ে যাবে। আমি ঘুমকে ভালোবাসি, ঘুমিয়ে ঘুমিয়ে স্বপ্ন দেখতে ভালোবাসি, ঘুম থেকে জেগে সেই স্বপ্ন নিয়ে আবার হাসতেও ভালোবাসি। আসলে আমি বাঁচতে ভালোবাসি…। [ডায়েরির পাতা]

(ফেসবুক থেকে সংগৃহীত)

     More News Of This Category