৩০ মার্চ ‘ইত্যাদি’র ব্রাহ্মণবাড়িয়া পর্ব

শুধু স্টুডিওর চার দেওয়ালেই বন্দী থাকেনি দেশের জনপ্রিয় ম্যাগাজিন অনুষ্ঠান ইত্যাদি। স্বাধীনতার এই গৌরবোজ্জ্বল মাসে ইত্যাদি ধারণের জন্য ব্রাহ্মণবাড়িয়াকে বেছে নেওয়া হয়েছে।

অনুষ্ঠানটির নতুন পর্ব ধারণ করা হলো শিক্ষা, সাহিত্য, সংগীতে সমৃদ্ধ জেলা ব্রাহ্মণবাড়িয়ায়। গত ১৬ মার্চ ব্রাহ্মণবাড়িয়ার তিতাস নদীর তীরে তিতাসপাড়ার তিতাস গ্যাস ফিল্ডের এক নম্বর কূপের সামনে মঞ্চ তৈরি করে ধারন করা হয়েছে এর নতুন পর্ব।

গণমানুষের প্রিয় এ অনুষ্ঠানটির নতুন পর্ব প্রচারিত হবে আগামী ৩০ মার্চ বিটিভি ও বিটিভি ওয়ার্ল্ডে-এ রাত ৮ টার বাংলা সংবাদের পর।

ইত্যাদির রচনা, পরিচালনা ও উপস্থাপনা করেছেন হানিফ সংকেত। নির্মাণ করেছে ফাগুন অডিও ভিশন।
নতুন পর্বটি প্রসঙ্গে হানিফ সংকেত বলেন, “১৯৭১ সালের মহান মুক্তিযুদ্ধের সময় এই গ্যাস ফিল্ডের ট্রান্সমিটার ব্যবহার করে স্থানীয় জনগণ রেডিও সম্প্রচারের মত দুঃসাহসিক পদক্ষেপ গ্রহণ করেছিলেন।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া মুক্তিযুদ্ধের বহু বীর গাঁথায় সমৃদ্ধ ঐতিহ্যবাহী জেলা, তাই স্বাধীনতার এই গৌরবোজ্জ্বল মাসে ইত্যাদি ধারণের জন্য ব্রাহ্মণবাড়িয়াকে বেছে নেওয়া হয়েছে।”

এবারের পর্বে রয়েছে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার ইতিহাস, ঐতিহ্য এবং প্রাকৃতিক গ্যাসের উপর একটি তথ্যসমৃদ্ধ প্রতিবেদন। রয়েছে এক ব্যতিক্রমী পরিশ্রমী অটোরিক্সা চালক দুলাল চন্দ্র দাসের উপর একটি মানবিক প্রতিবেদন।

বরিশালের বাবুগঞ্জের অবসরপ্রাপ্ত অধ্যাপক ইসাহাক শরীফের উপর রয়েছে একটি শিক্ষণীয় প্রতিবেদন। রয়েছে বাংলাদেশী বংশোদ্ভূত নেদারল্যান্ডসের নাগরিক আনোয়ারা বেগমের নিজের শিকড়ের সন্ধানের উপর একটি অনুসন্ধানী প্রতিবেদন।
বিদেশি প্রতিবেদনে রয়েছে পবিত্র মদিনা শরীফের একটি ব্যতিক্রমী রাস্তা।

এবারের ইত্যাদিতে মূল গান রয়েছে একটি। এবারের ইত্যাদিতে একটি দেশাত্মবোধক গান গেয়েছেন ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সন্তান কিংবদন্তি শিল্পী সৈয়দ আব্দুল হাদী।

ব্রাহ্মণবাড়িয়াকে নিয়ে একটি গানের সঙ্গে নৃত্য পরিবেশন করেছেন ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় জন্ম নেওয়া অভিনয়শিল্পী জাকিয়া বারী মম, সঙ্গে ছিলেন স্থানীয় একদল নৃত্য শিল্পী।

দর্শক পর্বের নিয়ম অনুযায়ী ধারণস্থান ব্রাহ্মণবাড়িয়াকে ঘিরে প্রশ্নোত্তরের মাধ্যমে হাজার হাজার দর্শক থেকে ৪ জন দর্শক নির্বাচন করা হয়। দ্বিতীয় পর্বে নির্বাচিত দর্শকদের সঙ্গে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কৃতী শিল্পী অভিনেতা সাজু খাদেম অভিনয় করেন।
নিয়মিত পর্বসহ এবারও রয়েছে বিভিন্ন সমসাময়িক ঘটনা নিয়ে বেশ কিছু সরস অথচ তীক্ষ্ণ নাট্যাংশ। পার্বণ পর্যেষণা, বিপথে গিয়ে বিপদে ফেলা, হাঁটার কাঁটা, যন্ত্রের যন্ত্রণা, হাসপাতালের হাঁসহ বিভিন্ন বিষয়ের উপর রয়েছে বেশ কয়েকটি নাট্যাংশ।

বরাবরের মত এবারও ইত্যাদির শিল্প নির্দেশনা ও মঞ্চ পরিকল্পনায় ছিলেন ইত্যাদির নিয়মিত শিল্প নির্দেশক মুকিমুল আনোয়ার মুকিম।

ইত্যাদি স্পন্সর করেছে কেয়া কসমেটিকস্ লিমিটেড।

     More News Of This Category